প্রশ্ন ও উত্তরলাইভ আপডেট

ভার্চুয়াল লাইফে ইসলামের বিভিন্ন দিক প্রচার এর উপায়

ভার্চুয়াল লাইফে ইসলামের বিভিন্ন দিক প্রচার: ভার্চুয়াল লাইফে ইসলামের বিভিন্ন দিক প্রচারে অংশ গ্রহণ করতে চান? মানুষকে ইসলামের বিভিন্ন দিক সম্পর্কে জানাতে চান? তাহলে এই পোষ্টটি আপনার জন্য।

” প্রচার করো, যদি একটিমাত্র আয়াতও হয় ” (সহীহ বুখারিঃ ৩৪৬১)

মহান আল্লাহ তা’আলা বলেনঃ

وَمَنْ أَحْسَنُ قَوْلًا مِّمَّن دَعَا إِلَى اللَّهِ وَعَمِلَ صَالِحًا وَقَالَ إِنَّنِي مِنَ الْمُسْلِمِين

“তার কথার চেয়ে উত্তম কথা আর কোন ব্যক্তির হতে পারে, যে মানুষকে আল্লাহর দিকে ডাকে, নেক কাজ করে এবং বল আমি মুসলমান”** (সুরা হা’মীম সেজদাহ ৪১:৩৩)

ভার্চুয়াল লাইফে ইসলামের বিভিন্ন দিক প্রচার:

বর্তমান সময়ে বিভিন্ন মানুষ ভার্চুয়াল লাইফে ইসলামের বিভিন্ন দিক প্রচার এ আগ্রহী হচ্ছে। অর্থাৎ সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে তারা বিভিন্ন মানুষকে আল্লাহ তাআলার বিভিন্ন কথাবার্তা পৌঁছে দেওয়ার চেষ্টা করছেন। তাদের একমাত্র উদ্দেশ্য মানুষ যেন আল্লাহ তাআলার দেখানো পথে চলে। তারা যেন ইসলামের প্রতি আগ্রহী হয় এবং পবিত্র ইসলাম ধর্মের বিভিন্ন দিক নির্দেশনা মেনে চলেন।

প্রথমত আপনি মানুষকে সঠিক দ্বীনের শিক্ষা দিন। দ্বিতীয়ত দ্বীনের প্রতি মানুষের আগ্রহ বাড়ানোর চেষ্টা করুন। মানুষকে এই শুভসংবাদ দিন যে, দ্বীন মেনে চললে দুনিয়ায় মিলবে সুখ, সমৃদ্ধি ও কল্যাণ এবং মৃত্যুর পরবর্তী জীবনে তাদের জন্য অপেক্ষা করছে জান্নাত এবং এক মহা আনন্দময় জীবন এবং যেই জীবনের কোন শেষ নেই। সেই সাথে তাদেরকে আল্লাহর শাস্তিরর ভয় দেখান।

ভার্চুয়াল লাইফে ইসলামের বিভিন্ন দিক প্রচার এর উপায়
ভার্চুয়াল লাইফে ইসলামের বিভিন্ন দিক প্রচার এর উপায়

ভার্চুয়াল লাইফে ইসলামের বিভিন্ন দিক প্রচার:

এই সমস্ত কাজ শুরু করার আগে নিজেকে এমন ভাবে গড়ে তুলুন যেন আপনার কথাবার্তা, চলাফেরা, আচার-আচরণে ইসলামের বিভিন্ন দিক প্রকাশ পায়। অর্থাৎ একজন মানুষ আপনাকে দেখলে যেন আপনার মত হবার চেষ্টা করে অথবা আপনার চলাফেরা, আচার-আচরণ, কথাবার্তা যেন তার হৃদয় আল্লাহ তায়ালার প্রতি অনুগত হওয়া জন্য বিভিন্ন বার্তা প্রদান করে। পবিত্র ইসলাম ধর্ম পালন খুব একটা কঠিন বিষয় নয় আবার ততটা সহজ নয়। অর্থাৎ আপনি যদি আল্লাহ এবং তাঁর রাসূলের দেখানো পথে চলতে পারেন তাহলে, আপনার জীবন চলার পথ খুবই সহজ হবে এবং জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে আপনি সুখ অনুভব করবেন। কিন্তু আপনি যদি তা অমান্য করেন তাহলে, জীবনের প্রায় প্রতিটি ক্ষেত্রেই আপনার জন্য রয়েছে দুঃখ কষ্ট।

এছাড়া আপনি আরো কিছু কাজ করতে পারেন যেমন:

  • ভাল আমলগুলো করার ক্ষেত্রে আপনি থাকবেন সবার আগে।
  • নিজে ভাল কাজ করবেন এবং অন্যকে ভালো কাজ করতে উৎসাহিত করবেন।
  • মানুষকে নিঃস্বার্থ ভাবে উপকার করবেন।
  • কথা ও কাজের মাধ্যমে আপনার দাওয়াতকে ছড়িয়ে দিন। তাহলেই আপনার বন্ধুরা আপনার দাওয়াত কবুল করবে। এর মাধ্যমে তারা বুঝতে সক্ষম হবে যে, আপনি যা বলছেন, সেটাই সঠিক।

ফলে তারা ইসলামের আদর্শকে মনে-প্রাণে গ্রহণ করবে, হৃদয় দিয়ে ভালবাসবে ইসলামকে এবং সেই সাথে আপনাকেও।

সবার প্রথমে আপনাকে জানতে হবে মানুষকে ইসলামের পথে আহবান করার সঠিক উপায় কি?

এ জন্য মহান আল্লাহ ইরশাদ করেনঃ

ادْعُ إِلَى سَبِيلِ رَبِّكَ بِالْحِكْمَةِ وَالْمَوْعِظَةِ الْحَسَنَةِ وَجَادِلْهُمْ بِالَّتِي هِيَ أَحْسَنُ إِنَّ رَبَّكَ هُوَ أَعْلَمُ بِمَنْ ضَلَّ

عَنْ سَبِيلِهِ وَهُوَ أَعْلَمُ بِالْمُهْتَدِينَ

“হেকমত ও উত্তম উপদেশের মাধ্যমে তোমার রবের পথে আহবান কর। আর সর্বোত্তম পন্থায় তাদের সাথে বিতর্ক কর। আপনার রব তো সবচেয়ে বেশি জানেন কে তার পথ থেকে বিচ্যুত এবং তিনিই ভাল জানেন কে হেদায়েত প্রাপ্ত। (সূরা নাহলঃ ১২৫)

নবী (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়াসাল্লাম) বলেছেন, “আমার পক্ষ থেকে জনগণকে (আল্লাহর বিধান) পৌঁছে দাও, যদিও একটি আয়াত হয়। বনী-ইস্রাঈল থেকে (ঘটনা) বর্ণনা কর, তাতে কোন ক্ষতি নেই। আর যে ব্যক্তি ইচ্ছাকৃতভাবে আমার প্রতি মিথ্যা (বা জাল হাদীস) আরোপ করল, সে যেন নিজ আশ্রয় জাহান্নামে বানিয়ে নিল।” (বুখারী ৩৪৬১)

ইসলামের বিভিন্ন দিক প্রচার:

পবিত্র কোরআন-হাদিসের বাণী ও শিক্ষা সমাজের প্রতিটি সেক্টরে পৌঁছে দেওয়ার জন্য ইসলাম নির্দেশ দিয়েছে। আধুনিক যুগে মানুষের কাছে ইসলামের বাণী পৌঁছে দেওয়ার অন্যতম মাধ্যম হলো- সোশ্যাল মিডিয়া। যার সঙ্গে সম্পৃক্ত কোটি কোটি মানুষের।

ভার্চুয়াল লাইফে ইসলামের বিভিন্ন দিক প্রচার:

বর্তমান সময়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় ভালো-মন্দ উভয় দিকই রয়েছে। খুব গভীরভাবে চিন্তা করলে ভালো চেয়ে মন্দ দিক এর প্রভাবে বেশি লক্ষ্য করা যায়। কিন্তু সবকিছুর মাঝখানে ও আমরা চাইলে ইসলামের বিভিন্ন কথা হাদিসের বিভিন্ন কথা এবং বিভিন্ন দিকনির্দেশনা আমরা সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে পারব। তার ফলে উপকৃত হবে অনেক মানুষ।

মানুষকে ইসলামের বিভিন্ন দিক সম্পর্কে বলা অর্থাৎ ইসলামের বিভিন্ন দিক প্রচার করা টা খুব একটা কঠিন বিষয় নয়। এই কাজটা করার জন্য শুধুমাত্র প্রয়োজন মনের ইচ্ছা। আমরা সারা দিনের অনেকটা সময় বিভিন্ন কাজে ব্যয় করি, কিন্তু খুব কম মানুষই রয়েছে যারা শুধুমাত্র আল্লাহতালার পথে তার দিনের বেশিরভাগ সময়টা ব্যয় করে।

আমরা যদি আমাদের দৈনন্দিন জীবনের একটা সময় আল্লাহতালার পথে ব্যয় করি আল্লাহতালার কথা মান্য করে চলি, তাহলে আমাদের জীবনটা হয়ে উঠবে খুব সহজ এবং সুন্দর।

ভার্চুয়াল লাইফে ইসলামের বিভিন্ন দিক প্রচার এর উপায়:

  • ফেসবুক পেইজের মাধ্যমে।
  • ফেসবুক গ্রুপের মাধ্যমে।
  • ওয়েবসাইট তৈরীর মাধ্যমে।
  • বিভিন্ন প্রকার ব্লগ লেখার মাধ্যমে।
  • ইসলামিক বিভিন্ন ছবি ও ভিডিও তৈরীর মাধ্যমে।

এছাড়া আরও বিভিন্ন উপায়ে মানুষকে ইসলামের বিভিন্ন দিক সম্পর্কে সচেতন করা যায়। আমরা সবাই জানি বর্তমান সময়ে মানুষ দিনের বেশিরভাগ সময়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় কাটায়। অর্থাৎ, বিভিন্ন মানুষের সাথে কথা বলার অথবা যোগাযোগ করার সবচেয়ে সহজ মাধ্যম হচ্ছে এখন সোশ্যাল মিডিয়া।

ভার্চুয়াল লাইফে ইসলামের বিভিন্ন দিক প্রচার: ছোট্ট একটা উদাহরণ দেই: ধরুন, আপনি যদি আজকেই একটা ফেসবুক পেইজ খোলেন এবং সেখানে আপনার ফ্রেন্ডলিস্টের সকল বন্ধুকে লাইক দেওয়ার জন্য ইনভাইট করেন। কিছুদিন পর দেখবেন আপনার পেইজে লাইক এর পরিমাণ বৃদ্ধি পাবে। তারপর যদি আপনি ধীরে ধীরে ইসলামের বিভিন্ন দিক সেই পেইজে শেয়ার করেন তাহলে সেই বার্তা গুলো আপনার ফ্রেন্ডলিস্টের প্রায় সব মানুষ দেখতে পারবে। এইভাবে সোশ্যাল মিডিয়াতেও ইসলামের বিভিন্ন দিক সম্পর্কে মানুষকে জানানো যায় এবং সতর্ক করা যায়।

তাছাড়া আরও অনেক উপায় রয়েছে। যেমন: একটা ফেসবুক গ্রুপ খোলার মাধ্যমে আপনি সেখানে অনেক মানুষ অ্যাড করতে পারবেন। সেখানেও যদি আপনি ইসলামিক বার্তা প্রচার করেন, তবুও কিন্তু তা অনেক মানুষের কাছে পৌঁছে যাবে। আপনি যদি ইন্টারনেট সম্পর্কে আরও কিছু জানেন তাহলে আপনি, বিভিন্ন ব্লগ অথবা ওয়েবসাইটের মাধ্যমে আপনার ইসলামিক কথাগুলো অর্থাৎ আল্লাহর রাসূলের প্রদত্ত বার্তাগুলো হাজারো মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে পারবেন। আমি মনে করি বর্তমান সময়ে এই কাজগুলো করাটা খুবই সহজ এবং প্রতিটি মুসলমানের উচিত এসব কাজের সাথে নিজেকে জড়িত করা।

ভার্চুয়াল লাইফে ইসলামের বিভিন্ন দিক প্রচার নিয়ে এই ছিল আমাদের আজকের আলোচনা। বেশ কিছু মানুষ আমাদের প্রশ্ন করে ভার্চুয়াল লাইফে অর্থাৎ সোশ্যাল মিডিয়াতে কিভাবে ইসলামের প্রচার করা যায়। আমার আজকের এই লেখাটি আপনাদের সকল প্রশ্নের উত্তর দিয়ে দিবে।

আপনারা যারা সোসিয়াল মিডিয়া অথবা ভার্চুয়াল লাইফে ইসলামের বিভিন্ন দিক প্রচার করতে চান, তারা আমাদের এই আর্টিকেলটি খুবই মনোযোগ সহকারে পড়বেন। আশা করি বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ তথ্য আপনারা জানতে পারবেন এবং বুঝতে পারবেন কিভাবে খুব সহজে অল্প সময়ে আপনারা ইসলামের বিভিন্ন দিক হাদিসের কথা এবং আল্লাহর রাসূলের প্রদত্ত বাণী গুলো খুব সহজে মানুষের নিকট পৌঁছে দিতে পারবেন।

আমরা সবাই বিভিন্ন কাজে দিনের বেশিরভাগ সময় ব্যয় করি চলুন আজ থেকে আমরা চেষ্টা করি অল্প কিছু কাজের মাধ্যমে ইসলামের বিভিন্ন বার্তা হাজারো মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে। একটা কথা মনে রাখবেন সবাই কিন্তু আপনার এই বার্তা গুলো পছন্দ করবে না, গুরুত্ব দিবে না। তাদের সাথে কখনো বিতর্ক অথবা ঝগড়া-বিবাদে জড়াবেন না। কারণ, ইসলাম শান্তির ধর্ম ইসলাম আমাদের কখনো কারো সাথে বিতর্ক অথবা ঝগড়া-বিবাদে জড়ানোর শিক্ষা দেয় নি।

আজ এ পর্যন্তই সবাই ভাল থাকবেন সুস্থ থাকবেন। আসসালামু আলাইকুম।

এই পোস্টটি করেছেন: Hamim Hossain ( Web Designer | Digital Marketer | Content Writer )

 

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button